অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম

গৃহিণীদের আয়কর জিরো রিটার্ন-অনেকেই জানে না গৃহিণীদের বা গৃহবধূদের আয়কর রিটার্ন জমা দিতে হয়?এমনকি তাদের যদি কোন আয় নাও থাকে তারপরেও আপনাকে গৃহিণীদের আয়কর রিটার্ন জমা দিতে হবে। শুনতে এটা খারাপ লাগলেও বর্তমান আইন অনুযায়ী প্রত্যেকটি গৃহিণীদের তাদের জিরো আয়কর রিটার্ন হলেও  প্রতিবছর এটি জমা দিতে হবে।

আয়কর দফতরের বক্তব্য, গৃহবধূরা ‘অন্যান্য উৎস থেকে আয়’ করতে পারেন, যেমন ফিক্সড ডিপোজিটের সুদ, মালিকানাধীন সম্পত্তি থেকে ভাড়া ইত্যাদি।যদি এই ধরনের উৎস থেকে আয় সরকার নির্ধারিত সীমা অতিক্রম করে, তাহলে একজন গৃহিণীকেও আয়কর রিটার্ন জমা দিতে হবে।

কোন ধরনের গৃহিণীর জন্য আয়কর রিটার্ন জমা দিতে হবে?

২০২৩-২৪ অর্থবর্ষের জন্য প্রযোজ্য নতুন কর কাঠামো অনুযায়ী, ৮০ বছরের কম বয়সী কোনও গৃহিণী যদি ৩ লাখ টাকার কম উপার্জন করেন তাহলে আয়কর দেওয়ার প্রয়োজন নেই।তবে জিরো রিটার্ন জমা অবশ্যই দিতে হবে।

যদি তিনি সুপার সিনিয়র সিটিজেন ক্যাটাগরিতে পড়েন অর্থাৎ 80 বছর বা তার বেশি তাহলে ন্যূনতম আয়ের সীমা বাড়িয়ে ৫ লাখ টাকা করা হয়েছে।  সহজ কথায়, গৃহিণীদের আয়কর দিতে হবে যদি বিভিন্ন উৎস থেকে তাদের মোট আয় মৌলিক আয়ের সীমা অতিক্রম করে।

গৃহিণীদের আয় এর উৎস

গৃহিণীরা অনেকে চাকরি বা ব্যবসা না করলেও যে সকল উৎস থেকে টাকা আয় হয়।

স্বামীর কাছ থেকে প্রাপ্ত টাকা যখন সংসারিক বিভিন্ন গৃহস্থালির কাজে ব্যবহার করে থাকেন এবং কিছু টাকা যদি ব্যাংকে থেকে যায় তাহলে এটি গৃহবধুর আয়ের উৎসের মধ্যে পড়বে না।

অনেক গৃহবধুর ফিক্সড ডিপোজিট রয়েছে। এই ফিক্সড ডিপোজিট থেকে সুদের ওপরে যদি পরিমাণ বেশি হয় তাহলে অবশ্যই আয়কর দিতে হবে।অর্থাৎ কোনও গৃহবধূ ফিক্সড ডিপোজিট থেকে যে সুদ পান তা সীমা অতিক্রম করলে ‘আয়’ হিসেবে বিবেচিত হয়।কোন স্বামী যদি তার স্ত্রীর নামে টাকা বিনিয়োগ করে সেখান থেকে আয় করে এই আয় স্বামীর নামে হবে।

👉গুগল নিউজে সবার আইটি বিডি সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন

আত্মীয়দের কাছ থেকে উপহার কর ছাড়যোগ্য।কিন্তু বাইরের কারো কাছ থেকে ৫০,০০০ টাকার বেশি মূল্যের উপহারকে আয় হিসেবে গণ্য করা হবে এবং সেই অনুযায়ী গৃহবধূকে কর দিতে হবে।

আশা করছি গৃহিণীদের আয়কর রিটার্ন কোন কোন বিষয়ে  দিতে হবে এ বিষয়টি আপনারা মোটামুটি ধারণা পেয়ে গিয়েছেন।এখন আমি আপনাদেরকে অনলাইনে গৃহিণীরা আয়কর রিটার্ন কিভাবে জমা দিবেন সে বিষয়ে জানাবো।

অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম 

অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার জন্য কয়েকটি ধাপ আপনাকে অনুসরণ করতে হবে।আপনি চাইলে আপনার হাতে থাকা স্মার্ট মোবাইল ফোনেও নিচের দেওয়া এই ধাপগুলো অনুসরণ করে। অনলাইনে গৃহিনীদের আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবেন।

ধাপ-১: E-Return একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

  • প্রথমেই আপনি আপনার মোবাইল অথবা কম্পিউটারে গুগল ব্রাউজারে গিয়ে https://etaxnbt.gob.bd এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন।
  • এখন আপনার সামনে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড বাংলাদেশের ওয়েবসাইটটি চলে আসবে এখানে অনেকগুলো অপশনের মধ্যে “e Return “এই অপশনটির উপরে ক্লিক করুন।
  • এখন আপনার সামনে “ওয়েলকাম সাইন ইন টু ইওর একাউন্ট” একটি ইন্টারফেক্ট চলে আসবে অর্থাৎ এখানে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে প্রথম অ্যাকাউন্ট যদি হয়ে থাকে।
  • নিচে থেকে “Registration” এই অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিন।
  • এখন “Sign Up“বক্স অর্থাৎ এখানে আপনাকে আপনার পিন নাম্বার আপনার একটিভ মোবাইল নাম্বার এবং ক্যাপচা পূরণ করে ভেরিফাই অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিতে হবে।
  • কিছুক্ষণ পরে আপনার একটি ফোন নাম্বারে ৬ সংখ্যার একটি ওটিপি কোড চলে আসবে। সেখান থেকে আপনি একটি  পাসওয়ার্ড দিয়ে সাইন আপ কমপ্লিট করে নিবেন।
  • এরপর পুনরায় “sign in” অপশনে ক্লিক করে আপনার পিন নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে সাইন ইন করে নিন।

অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম

ধাপ-০২: আপনার প্রোফাইল লগইন করা হয়ে গেলে। নিচের ছবির মত এরকম ইন্টারফেস পেয়ে যাবেন। এখান থেকে “eReturn submission“এই অপশনটির উপরে ক্লিক করুন।অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম

  • এখন আপনার সামনে যে ইন্টারফেসটি বা পেজটি ওপেন হবে তা হচ্ছে “assessment information “এই পেজে ডিফল্ড আকারে যে ইনফরমেশন গুলো যেভাবে থাকবে সেভাবে আপনারা রেখে দিবেন।
  • দুইটি ইয়েস এবং নো করার অপশন পাবেন দুটি আপনি নো করে দিবেন। অবশ্যই ছবির সঙ্গে মিলিয়ে নিবেন।

অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম

ধাপ-২: save & continue এই অপশনটির উপরে ক্লিক করে পরবর্তী পেজে চলে যাবেন।এখন আপনার সামনে” additional information” এই পেজে যতগুলো অপশন থাকবে সবকটি আপনি নো করে দিবেন।শুধুমাত্র  IT10B এই অপশনটিতে ইয়েস টিক দিবেন। এরপর save & continue ক্লিক করে পরবর্তী ধাপে চলে যাবেন।

ধাপ-০৩: expenditure পেজে নিয়ে আসবে।অর্থাৎ এখানে আপনি লাস্ট গত বছর অর্থবছরে কত টাকা ব্যয় করেছেন তার হিসাব দিতে হবে। এখানে ফাস্ট  অপশনে আপনি নো করে দিবেন। এরপর আপনার সামনে একটি খরচের বক্স আসবে। সেখান থেকে আপনি অনুমানিক ৫০-৬০ হাজার বা একটা খরচ বসিয়ে দিবেন। এরপর save & continue  পরবর্তী ধাপে চলে যাবে।

ধাপ-০৪: assets & liabilities – গৃহিণীদের অনলাইন আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে এটি।

এই ধাপটিতে গৃহিণীদের আয় ব্যয় থেকে শুরু করে সকল হিসেব নিকাস সুন্দরভাবে যে রিকুয়ারমেন্ট গুলো দেওয়া রয়েছে সেই রিকোয়ারমেন্ট গুলো অনুসরণ করবেন।নিচে আসলে ফাইনাল যে ক্যালকুলেশন থাকবে সেই ডিফারেন্ট এর ঘর যাতে অবশ্যই শূন্য হয়।

এই অপশন সম্পর্কে যদি আপনি না জানতে পারেন নিচে থাকা ভিডিওটি অবশ্যই অনুসরণ করবেন।

ধাপ-০৫: tax & payments যেহেতু গৃহিনীদের একদমই  আয় নাই  সেহেতু প্রত্যেকটা অপশন একদম জিরো হয়ে থাকবে শুধুমাত্র ডিফল্ট আকারে যা আছে আপনি চেক দিয়ে নিচের দিকে চলে আসবেন। যেহেতু আমাদের কোন ট্যাক্স নেই একদম নিচে থেকে “proceed to online return “এই অপশনটিতে করে ক্লিক করে পরবর্তী ধাপে চলে যাবেন।

অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম

ধাপ-৬:শেষ ধাপ- এখন আপনার সামনে যতগুলো  প্রসেস বা ধাপ কাজ করেছন সব সামারি কিন্তু এখানে চলে আসবে। পুনরায় আপনি সকল ইনফরমেশন গুলো ফাইনালে চেক দিয়ে নিবেন এবং নিচের দিকে চলে আসবেন। সকল ইনফরমেশন গুলো ঠিকঠাক থাকলে নিচে একটি অপশন দেখতে পাবেন “submit return “এই অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিন।

অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম

আপনার রিটার্ন টি একদম সাকসেসফুল হয়ে যাবে আপনি চাইলে রিটার্নটি ওপেন করে নিচে সেভ অপশন থেকে ডাউনলোড দিয়ে নিতে পারেন।

আশা করছি উপরের এই নিয়মগুলো যদি আপনি অনুসরণ করেন তাহলে হাতে থাকা মোবাইল ফোন অথবা কম্পিউটার ডিভাইসের মাধ্যমে খুব সহজেই আপনি অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দিতে পারবেন।

এছাড়াও আমি আপনাদের সুবিধার্থে যে কাজ করে থাকি। প্রত্যেকটি পোষ্টের সঙ্গে আমি আমার ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওটি দিয়ে রাখি যাতে করে পোস্ট থেকে আপনাদের বুঝতে বা কোন কাজ করতে অসুবিধে হলে আপনারা নিচের দেওয়া এই ভিডিও থেকে সহজেই দেখে দেখে আপনারা এই কাজ গুলো করতে পারেন। এছাড়াও আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজেও এই ভিডিওটি পাবলিস্ট করা থাকবে।

অনুরোধ – অবশ্যই আমাদের ইউটিউব চ্যানেল এবং Facebook পেজটি ফলো এবং সাবস্ক্রাইব করে রাখবেন।

👉🙏লেখার মধ্যে ভাষা জনিত কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকলে অবশ্যই ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

✅আজ এ পর্যন্তই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন 🤔

আপনার জন্য-

মোবাইল দিয়ে টিন সার্টিফিকেট তৈরি
অনলাইনে টিন সার্টিফিকেট তৈরি করার নিয়ম

আমাদের আরো সেবা সমূহ :-

↘️আমার ভিডিওগুলো পাবেন যে সকল মাধ্যমে 👇

➡️YouTube চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️Facebook পেজ ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️Instagram চ্যানেল ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️WhatsApp চ্যানেল ফলো করে রাখুন – এখানে ক্লিক করুন

➡️Telegram গ্রুপ ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️Treads চ্যানেল ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️TikTok চ্যানেল ফলো করে রাখুন-এখানে ক্লিক করুন

Leave a Comment