চাকরিজীবীদের জন্য জিরো আয়কর রিটার্ন অনলাইনে জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম

চাকরিজীবীদের জন্য জিরো আয়কর রিটার্ন –আয়কর রিটার্ন জমা দেয়া আর কোন ঝামেলা না। আপনারা চাইলে ঘরে বসেই নিজেই অনলাইনে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে পারবেন।

আসসালামু আলাইকুম আশা করছি সকলে ভালো আছেন, আজকের পোস্টে আপনাদেরকে সম্পূর্ণ ভাবে দেখাবো,  কিভাবে আপনারা ঘরে বসে হাতে থাকা স্মার্ট মোবাইল ফোন অথবা কম্পিউটার ডিভাইস ব্যবহার করে আয়কর জিরো রিটার্ন অনলাইনে জমা দিবেন। অর্থাৎ চাকুরীজীবীদের জন্য জিরো আয়কর রিটার্ন অনলাইনে জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম।

আমরা বর্তমানে অনেকেই রয়েছি বাংলাদেশে যারা চাকুরীজীবী। এই চাকরিজীবী হওয়ার ফলে আমরা কিন্তু আমাদের যে স্যালারি বলুন বা বেতন বলুন এই স্যালারি বা বেতনের আয়কর জিরো রিটার্ন কিভাবে অনলাইনে মাধ্যমে ঘরে বসে দিব সে বিষয়টি আমরা জানি না।

যার ফলে যে সমস্যাটি হয় একে তো আমরা সরকারিভাবে ইনকাম ট্যাক্স এর যে আয়কর জিরো রিটার্নটি জমা দেওয়ার প্রয়োজন সেটি দেওয়া হয় না ,পরবর্তীতে যেকোনো ধরনের ব্যাংকিং লোন থেকে শুরু করে অন্যান্য কার্যক্রমে যাওয়ার সময় এটি সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এছাড়াও  বিভিন্ন উকিল মাধ্যমে যদি আয়কর রিটার্ন জিরো দাখিল করতে চাযন সেক্ষেত্রেও আমাদের কিন্তু অনেক টাকা উকিলের পিছনে গুনতে হয়।

তাই আমি নিজে  নিজের জন্য আপনাদের সামনে এই পদ্ধতি অবলম্বন করে আয়কর রিটার্ন জিরো দাখিল করব এবং পাশাপাশি আপনাদেরকে জানাবো।

আয়কর রিটার্ন দাখিল এর পূর্বে অবশ্যই যা প্রয়োজন

  • আয়কর রিটার্ন দাখিলের পূর্বে আয়কর নির্দেশিকা ২০২৪ অবশ্যই পড়ে নিবেন। তাতে করে আপনি আয়কর রিটার্ন সম্পর্কে আরো বেশি অবগত হবেন।
  • চাকুরীজীবীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দিতে অবশ্যই আপনার পে স্কেলের বা পে স্যালারি সার্টিফিকেট অথবা বেতন বিবরণী কাগজ সঙ্গে রাখুন।
  • আপনার পরিবারের এবং ব্যক্তিগত ব্যয়ের হিসাব সঙ্গে রাখুন।
  • চাকুরীর বেতনের পাশাপাশি যদি অন্যান্য খাত থেকে আপনার ইনকাম হয়ে থাকে সেই হিসাব বিবরণী সঙ্গে রাখুন।
  • আপনার টিন সার্টিফিকেটটি সঙ্গে রাখুন।

আশা করছি উপরের এই সকল বিষয় যদি আপনার কাছে থাকে তাহলে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে চাকুরীজীবী হয়ে থাকলে জিরো রিটার্ন দাখিল করতে পারবেন।

আয়কর রিটার্ন দাখিল এর সময়সীমা

আয়কর রিটার্ন দাখিলের কিন্তু সময়সীমা রয়েছে এ বিষয়ে আপনার অবশ্যই আয়কর জমা দেওয়ার পূর্বে এই বিষয়টি অবগত হতে হবে।

প্রতিবছরের আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় হচ্ছে নভেম্বর মাস। বিগত অর্থ বছরের জুলাই থেকে শুরু করে জুন মাসের ২৩ সাল পর্যন্ত আপনার আয়কর রিটার্ন  আয়ের উপর কর নির্ধারণ দাখিল করতে হয় নভেম্বর মাসে মধ্যে।

👉গুগল নিউজে সবার আইটি বিডি সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন

তবে আমার মত আপনারা যদি প্রথমবার চাকুরীজীবীদের জিরো আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে চান, তাদের জন্য বিনা জরীমানায় আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে পারবেন। তারা আগামী ৩০ শে জুন ২০২৪ তারিখ পর্যন্ত এই সুবিধাটি পাবে। তাই দেরি না করে আমার দেখানো নিয়ম অনুসরণ করে এখনই ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে আপনি চাকরিজীবী হয়ে থাকলে জিরো আয়কর রিটার্ন এখনই জমা দিন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য – করদাতাদের সুবিধার্থে মাঝেমধ্যে রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বৃদ্ধি করা হতে পারে।

চাকরিজীবীদের জন্য জিরো আয় করার রিটার্ন দাখিল করার নিয়ম

আজকের এই পোষ্টে শুধুমাত্র আপনাদেরকে দেখাবো চাকুরিজীবীরা যারা রয়েছে তারা কিভাবে জিরো আয়কর রিটার্ন  অনলাইনের মাধ্যমে জমা দিবেন সে বিষয়টি। তো চলুন শুরু থেকেই স্টেপ বাই স্টেপ দেখি।

  • প্রথমে আপনাকে যে কাজটি করতে হবে তা হচ্ছে ই রিটার্ন সিস্টেমের রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। অনলাইনে ই রিটার্ন জমা দেওয়ার জন্য আপনার টিন ও নিজ নামে রেজিস্ট্রেশন করা মোবাইল নাম্বার দিয়ে ই রিটান সিস্টেমে সাইন আপ করতে হবে।

ই রিটার্ন সিস্টেমের রেজিস্ট্রেশন করার জন্য নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করুন-

ধাপ-০১

রেজিস্ট্রেশন করার জন্য প্রথমেই এই লিংকটি ভিজিট করুনe- return registration

ধাপ-০২

এখানে নিচের ছবির মত এরকম ই রিটার্ন ওয়েবসাইটে সাইন আপ বক্স চলে আসবে।এখানে আপনার রেজিস্টার  টিন নাম্বার দিতে হবে এবং সচল একটি ফোন নাম্বার ব্যবহার করতে হবে। এছাড়াও নিচে আপনি ক্যাপচা বলে একটি অপশন দেখতে পাবেন সেখানে আপনি ক্যাপচাটি পূরণ করে নিবেন। এখন নিচে থাকা “verify ” অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিন।

চাকরিজীবীদের জন্য জিরো আয়কর রিটার্ন

ধাপ-৩

এই ধাপে আপনি যে ফোন নাম্বারটি ব্যবহার করেছেন সেই ফোন নাম্বারটিতে ৬ সংখ্যার একটি otp কোড দিতে হবে এবং আপনার পাসওয়ার্ড গুলো সেট করতে হবে। নিচের ছবিটি আপনারা অনুসরণ করুন আর আমার লেখাগুলো ছবির সঙ্গে মিলিয়ে নিন।

প্রথম বক্সে -OTPছয় সংখ্যার ওটিপি কোড বসিয়ে দিন।

দ্বিতীয় বক্সে- new password -এখানে আট সংখ্যার একটি আপনার ব্যক্তিগত স্ট্রং পাসওয়ার্ড দিয়ে নিন।

তৃতীয় বক্সে –Confirm New Password এখানে আপনি উপরের বক্সে যে পাসওয়ার্ডটি ব্যবহার করেছেন সেম পাসওয়ার্ডটি এখানেও ব্যবহার করুন।

নিচে থাকা Submit” অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিন।চাকরিজীবীদের জন্য জিরো আয়কর রিটার্ন

আশা করছি উপরের এই ধাপ গুলো অনুসরণ করলে আপনি সফলভাবে ই রিটার্ন রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট করতে পারবেন।

ধাপ-০৪

এধাপে আপনার টিন নাম্বার এবং নতুন যে পাসওয়ার্ড সাইন আপের সময় তৈরি করেছিলেন সেই পাসওয়ার্ড দিয়ে এবং ক্যাপচা পূরণ করে সাইন ইন করে নিন। সাইন আপ করলে আপনার সামনে এই রকম ছবির মতো ইন্টারফেস চলে আসবে।

চাকরিজীবীদের জন্য জিরো আয়কর রিটার্ন

স্যালারি জিরো আইকর রিটার্ন দাখিল এর নিয়ম

ই রিটার্ন সিস্টেমে প্রথমে আপনি সাইন ইন করে নিন। এবং “e return ” অপসনে ক্লিক করে আপনি আপনার প্রোফাইলে প্রবেশ করুন।অর্থাৎ আপনি একদম এই ওয়েবসাইটে ই রিটার্ন  সাবমিশন জমা দেওয়ার জন্য আপনি এই ওয়েবসাইটে আপনার টিন নাম্বার আপনার পাসওয়ার্ড এবং ক্যাপচা পূরণ করে sign in”  করুন।

চাকরিজীবীদের জন্য জিরো আয়কর রিটার্ন

  • এখন আপনি বাম পাশেই মেনুগুলো থেকে আপনার প্রোফাইলে সাইন ইন হওয়ার পরে “Detail Return ”  এই অপশনটির উপরে জাস্ট ক্লিক করে দিন।এখন আপনার সামনে জিরো আইকন রিটার্ন জমা দেওয়ার ফর্মটি চলে আসবে এখান থেকেই স্টেপ বাই স্টেপ ইনফরমেশন দিতে হবে।
  • প্রথম অপশনে আপনি চাকুরীজীবী কিনা এটি সিলেক্ট করুন।
  • দ্বিতীয় অপশনে আপনার ইনকাম। অর্থাৎ আপনার পে স্লিপ দেখে আপনার ইনকামের ডিটেলস দিয়ে দিন।
  • তৃতীয় অপসনে আপনার ইনকামের যে হয়েছে তার খরচ অর্থাৎ আপনি খরচ করেছেন প্রতি বছর কত টাকা সেটি দিয়ে দিন।
  • এরপর শেষ ধাপে আপনি সাবমিট করে দিন।

উপরের এই নিয়মটিতে যদি আপনার কোন অসুবিধা হয়ে থাকে বিস্তারিত লাইভ দেখতে নিচে থাকা ভিডিওটি দেখে নিবেন।

আয়কর রিটার্ন টেক্স সার্টিফিকেট ডাউনলোড

সম্পূর্ণ আবেদন করা হয়ে গেলে আপনি চাইলে আপনার ডিভাইসে এই ট্যাক্স সার্টিফিকেট ডাউনলোড করে রাখতে পারেন।ট্যাক্স সার্টিফিকেট ডাউনলোড করার জন্য মেনু থেকে “Tax Certificate ” এই অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিন। তাহলে আপনার সার্টিফিকেটটি চলে আসবে নিচে স্কোল করে “ডাউনলোড “অপশন দেখতে পাবেন সেখান থেকে আপনার সার্টিফিকেটটি ডাউনলোড করে নিন।

চাকরিজীবীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দেওয়া সম্পর্কিত প্রশ্ন উত্তর

মোবাইলের মাধ্যমে এ রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে কিনা?

প্রথম উত্তর হচ্ছে ভালো ভার্সনের মোবাইল হলে ডেক্সটপ মোড করে সেম ভাবে আপনারা নিয়মগুলো অবলম্বন করে এ রিটার্ন জমা দিতে পারবেন। তবে মোবাইল ভার্সনে অনেক অপশন আপনি নাও হতে পারেন। সেক্ষেত্রে চেষ্টা করবেন যাতে কম্পিউটারের মাধ্যমে রিটার্নটি  জমা দিতে।

ই রিটার্ন সিস্টেম রেজিস্ট্রেশন করতে কি লাগে?

TIN নাম্বার এবং রেজিস্টারকৃত একটি মোবাইল নাম্বার।

ই রিটার্ন জমা দেওয়ার সবার জন্য বাধ্যতামূলক কিনা?

জি ই রিটার্ন সবার ক্ষেত্রে জিরো রিটার্ন হলেও প্রতিবছর জমা দিতে হবে।

প্রতিবছর রিটার্ন জমা দেওয়ার শেষ মাস কোনটি?

প্রতিবছর আপনাকে নভেম্বরের মধ্যে গত বছরের আয়ের সকল হিসেব জমা দিতে হবে।

শেষ কথা –

আশা করছি  অনলাইনের মাধ্যমে যারা চাকরিজীবী রয়েছে জিরো রিটার্ন এখনো পর্যন্ত জমা দেন নাই  তারা অবশ্যই উপরের এই নিয়ম অনুসরণ করে ই রিটার্নটি নভেম্বরের মধ্যে জমা দিয়ে দিন।

আমি ব্যক্তিগতভাবে সেম নিয়মে অনলাইনে ঘরে বসেই আমার স্যালারি জিরো ই রিটার্ন জমা দিয়েছি। এরপরও আপনাদের যদি বুঝতে বা কোন বিষয়ে জানতে ইচ্ছে করে অবশ্যই পোস্টের কমেন্টসে জানিয়ে দিবেন। পাশাপাশি আপনি যে ভিডিও দেখেছেন সেই ভিডিওর ইউটিউব চ্যানেল টি সাবস্ক্রাইব করে রাখবেন তাতে করে এই সম্পর্কিত আরো সকল নাগরিক সেবার ভিডিওগুলো পাবেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য – সম্পূর্ণ ইনফরমেশন গুলো অনলাইন থেকে সংগৃহীত।

👉🙏লেখার মধ্যে ভাষা জনিত কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকলে অবশ্যই ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

✅আজ এ পর্যন্তই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন 🤔

আপনার জন্য-

মোবাইল দিয়ে টিন সার্টিফিকেট তৈরি

অনলাইনে গৃহিণীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম

অনলাইনে টিন সার্টিফিকেট তৈরি করার নিয়ম

ছাত্র-ছাত্রীদের আয়কর জিরো রিটার্ন জমা দেওয়ার নিয়ম

আমাদের আরো সেবা সমূহ :-

↘️আমার ভিডিওগুলো পাবেন যে সকল মাধ্যমে 👇

➡️YouTube চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️Facebook পেজ ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️Instagram চ্যানেল ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️WhatsApp চ্যানেল ফলো করে রাখুন – এখানে ক্লিক করুন

➡️Telegram গ্রুপ ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️Treads চ্যানেল ফলো করে রাখুন –এখানে ক্লিক করুন

➡️TikTok চ্যানেল ফলো করে রাখুন-এখানে ক্লিক করুন

1 thought on “চাকরিজীবীদের জন্য জিরো আয়কর রিটার্ন অনলাইনে জমা দেওয়ার সঠিক নিয়ম”

Leave a Comment