নতুন নিয়মে অনলাইন আয়কর রিটার্ন জমা দিন | Bangladesh income Tex return form

আসসালামু আলাইকুম আশা করছি সকলে ভালো আছেন, বর্তমানে আমাদের বাংলাদেশে অনলাইন আয়কর রিটার্ন দাখিল করার বিষয়টি নিয়ে অনেক বিভ্রান্তকর অবস্থায় পড়ে গিয়েছে অনেকে। তাই আজকে অনলাইন আয়কর রিটার্ন সমস্যার সমাধান নিয়ে এই পোস্ট।

আজকের পোস্টে যে সকল বিষয় জানতে পারবেন, অনলাইন আয়কর রিটার্ন কি? অনলাইন আয়কর রিটার্ন দাখিল করার নিয়ম, অনলাইন আয়কর রিটার্ন ফরম, এছাড়াও জানতে পারবেন, অনলাইন আয়কর প্রত্যয়ন পত্র এবংঅনলাইন আয়কর পরিশোধ অর্থাৎ অনলাইন আয়কর রিটার্ন সম্পর্কিত এ টু জেড বিষয়গুলি আপনাদেরকে জানানো হবে।

আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছে যে নতুন তারা অনেকেই জানেনা অনলাইন আয়কর রিটার্ন কি? এটি আসলেই প্রয়োজন হয় কিনা? এটি জমা দিলে লাভ কি? আয়কর রিটার্ন জমা না দিলে ক্ষতি কি? অর্থাৎ আয়কর রিটার্ন সম্পর্কিত তথ্য গুলি বা বিষয়গুলি সম্পর্কে জানেনা। তাদের জন্য আজকের এই পোস্টটি খুবই সাহায্যকর একটি পোস্ট হবে ইনশাল্লাহ। তো চলুন আমরা মূল পোস্টে চলে যাই।

আয়কর রিটার্ন কি? /What is Income Tax Return?

আয়কর রিটার্ন কি এই বিষয়টি নিয়ে আপনি গুগলে সার্চ করলে বা YouTube এ সার্চ করলে বিভিন্ন রকম আপনি তথ্য পাবেন। তবে আমি আপনাদেরকে একদম আয়কর রিটার্ন কি সেটি সহজ বাংলা ভাষায় বলে দিচ্ছি। আয়কর রিটার্ন হচ্ছে -আপনি প্রতিবছর যে পরিমাণ আয় করেন সেই পরিমাণ আয়ের সংক্ষিপ্ত একটি বিবরণী বা হিসাব কর্তৃপক্ষকে প্রদান করা।

অর্থাৎ আরো বাংলা ভাষায় বললে, আপনি সারা বছর যে আয় করছেন সেই আয়ের হিসাব সরকার কে প্রদান করা।

আয়কর রিটার্ন কাদের দিতে হবে?

আয়কর রিটার্ন আপনার জন্য প্রযোজ্য কিনা নিচে দেখুন-

যাদের ট্যাক্স আইডেন্টিফিকেশন নম্বর বা টিআইএন আছে তাদের জন্য আয়কর রিটার্ন দাখিল করা বাধ্যতামূলক। আয়কর রিটার্নে, করদাতা তার আয়, ব্যয়, সম্পদ এবং ফাইল করার তথ্য সরকার কর্তৃক নির্ধারিত একটি ফর্মে আয়কর অফিসে জমা দিতে হবে। ব্যক্তিগত এবং প্রতিষ্ঠান করদাতাদের জন্য পৃথক রিটার্ন জমা দিতে হবে।

আয়কর রিটার্ন দাখিল করলেই যে আপনাকে কর বা টাকা দিতে হবে বিষয়টি কিন্তু এমন না। কারণ আপনি যদি কর যোগ্য না হন তাহলে কোন ধরনের কর দিতে হবে না।অর্থাৎ সে শুধুমাত্র রিটার্ন জমা দিলেই হবে।

আয়কর হিসাব কিভাবে হয়?

আপনাকে যে বছর আয়কর দিতে হবে। তার আগের অর্থবছরে আপনার লেনদেনের হিসাব এর উপরে এই কর দিতে হবে। অর্থাৎ যে আয়কর দেবে তার আগের অর্থবছর অর্থাৎ গত বছরের জুলাই থেকে চলতি বছরের জুন মাস পর্যন্ত আয় ব্যয়ের হিসাব করে আপনাকে আয়কর প্রদান করতে হবে।

আয়কর হিসাব নিকাশ | কত টাকা আয় হলে আয়কর দিতে হয়?

বর্তমান সরকারের নিয়ম অনুযায়ী বাংলাদেশি কোন নাগরিকের বাড়ি ভাড়া/ চিকিৎসা ভাতা ও যাতায়াত ভাতা বাদ দিয়ে বছরে তিন লাখ টাকার বেশি আয় হলে তাকে আয়কর দিতে হবে। এছাড়া যারা চাকরিজীবী রয়েছে তাদের জন্য মূল বেতন ১৬ হাজার টাকার বেশি হলেই কর দিতে হবে। এখানে লক্ষ্য নিও আপনার মূল বেতন বিষয়টি কিন্তু বুঝে নিবেন।

আয়কর দাতার বয়স সীমা?

আয়কর দেওয়ার জন্য তৃতীয় লিঙ্গের ব্যক্তি নারী ও ৬৫বছর বা তদূর্ধ্ব বয়সী করদাতার আয় বছরের ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকার বেশি গ্যাজেট ভুক্ত যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা করদাতা আয় বছরে ৪ লাখ ৭৫ হাজার টাকার বেশি, এবং প্রতিবন্ধী করদাতার আয় ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকার বেশি হতে হবে।

আয়কর কখন জমা দিতে হয়?

আয়কর জমা দেওয়ার সময় হচ্ছে জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত সাধারণত প্রতি অর্থবছরের এই পাঁচ মাস জরিমানা ছাড়া বার্ষিক আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া যায়। অর্থাৎ একজন ব্যক্তি ৩০ শে নভেম্বর পর্যন্ত করদাতার আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবে। এমনকি আপনি চাইলে আয়কর মেলাতেও আয়কর রিটার্ন দাখিল করা যায়।

আবার অনেকে প্রশ্ন করে করদাতা যদি বিদেশে অবস্থিত থাকে সে ক্ষেত্রে কিভাবে আয়কর দাখিল করতে পারে? রিটার্ন দাখিল এর সময় করদাতা বিদেশ অবস্থিত বাংলাদেশী দূতাবাসেও রিটার্ন দাখিল করতে পারেন।

অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার নিয়ম

অনলাইনের মাধ্যমে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার নিয়ম আমি স্টেপ বাই স্টেপ নিচে আপনাদেরকে দিয়ে দিচ্ছি। আপনারা এই নিয়ম অনুসরণ করলে খুব সহজেই আপনারাও ঘরে বসে আপনাদের হাতে থাকায় স্মার্ট মোবাইল ফোন অথবা কম্পিউটার ডিভাইসের মাধ্যমে সহজেই অনলাইন আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবেন।

এছাড়াও অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার পাশাপাশি ঘরে বসেই সনদ, আয়কর রিটার্নের কপি সংগ্রহ করা যায় এবং রিটার্ন দাখিল এর সময় বাড়ানোর আবেদন করা যায়।

  • আয়কর রিটার্ন প্রদান করার জন্য প্রথমে আপনি আপনার কম্পিউটার অথবা মোবাইল ডিভাইজে এসে এই লিংকটিতে ক্লিক করবেন।
  • এখন আপনার সামনে নিচের ছবির মত জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি ওপেন হয়ে যাবে।অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার নিয়ম
  • এরপরে আপনি নিচে থেকে যতগুলো অপশন দেখতে পাবেন সেখান থেকে দুই নাম্বার অপশন “eReturn”এই অপশনটির উপরে জাস্ট ক্লিক করে দিবেন। এরপরে আপনার সামনে নিচের ছবির মত এরকম ইন্টারফেস চলে আসবে ওয়েলকাম ইন্টারেস্ট।
  • আপনি যদি এই ওয়েবসাইটে প্রথম হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে এখানে “রেজিস্ট্রেশন” প্রথমে করে নিতে হবে। রেজিস্ট্রেশন করতে নিচে থাকা “রেজিস্ট্রেশন” এই লেখাটির উপরে জাস্ট ক্লিক করে দিন ।অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার নিয়ম
  • এরপরে আপনার সামনে “sign up” বক্সটি চলে আসবে নিচের ছবির মত মিলিয়ে নিন।
  • এখানে প্রথমে আপনার” টিন নাম্বার“(TIN No) প্রদান করতে হবে।
  • এরপরে আপনার নিজের একটি ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করবেন। অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনি যে মোবাইল নাম্বারটি ব্যবহার করছেন সেই মোবাইল নাম্বারে ৬ সংখ্যার একটি ওটিপি কোড আপনার কাছে যাবে। সেই ওটিপি কোড দিয়ে ভেরিফাই করে নিবেন।
  • এরপরে আপনাকে একটি ক্যাপচা দেওয়া হবে সেখান থেকে আপনি ক্যাপচাটি ফুলফিল করবেন।
  • এরপরে নিচে থাকা ভেরিফাই (verify) লেখাটির উপরে ক্লিক করে দিয়ে আপনার অ্যাকাউন্টটি তৈরি করবেন।
    অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার নিয়ম

উপরের এই নিয়ম অনুসরণ করলে আপনি খুব সহজেই এখানে আপনার অ্যাকাউন্টটি তৈরি করে ফেলতে পারবেন আশা করছি উপরের দেখানো নিয়ম অনুসরণ করলে কোন ধরনের সমস্যা সম্মুখীন হবেন না।

  • রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট হয়ে গেলে নিচে থাকা” সাইন ইন” অপশন টির উপরে জাস্ট ক্লিক করে দিবেন।
  • এরপরে আপনার সামনে “sign in ” বক্স নিচের ছবির মত চলে আসবে। এখানে আপনি আপনার যে TIN No দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন সেটির নাম্বারটি ব্যবহার করবেন। এরপর আপনি একটি আপনার “পাসওয়ার্ড “ব্যবহার করবেন।
  • এখন নিচে একটি “ক্যাপচা” অপশন আসবে । সেখান থেকে ক্যাপচাটি ফিলাপ করে নিচে থাকা “sign in” অপশনটিতে উপরে জাস্ট ক্লিক করে দিবেন।অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার নিয়ম

ব্যাস আপনার কাজ শেষ আপনার আইডিটি” লগইন” হয়ে যাবে। এরপরে আপনার প্রোফাইলে ঢুকলে আপনি উপরের দিকে আপনার নাম সহ আপনার প্রোফাইলটি দেখতে পাবেন নিচের ছবিতে লক্ষ্য করবেন।

এরপর বাম পাশে আসলে আপনি “Home” আর নিচে আসলে “returns submission “তার একটু নিচে আসলে “tax record “এই তিনটি অপশন দেখতে পাবেন।

অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার নিয়ম

এখন যাদের করযোগ্য আয় নেই বা জিরো ট্যাক্স। তারা প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই রিটার্ন জমা দিতে পারবেন। যাদের কর আয় রয়েছে তাদের কর দিতে হবে এজন্য ওয়েবসাইট থেকেই জেনে নেওয়া যাবে আপনার কর এর পরিমাণ অর্থাৎ রিটার্নের সঙ্গে কত টাকা জমা দিতে হবে ইত্যাদি তথ্য।বলে রাখা ভালো যে অবশ্যই কর রিটার্ন জমা দেওয়ার পর স্লিপটি ডাউনলোড করে সংরক্ষণ করতে হবে।

  • এখন আপনি রিটার্ন জমা দেওয়ার জন্য “return submission “এই অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিন। এরপরে আপনার সামনে রিটার্ন জমা দেওয়ার একটি ফরম চলে আসবে। সেই ফর্ম পরিপূর্ণ করুন। অবশ্যই ফর্মটি পরিপূর্ণ করার সময় সঠিক তথ্য দিবেন।
  • এভাবে পরের স্টেপগুলোতে আসা পর ফরম গুলো পূরণ করুন। অবশ্যই বিশেষ করে আপনার ইনকাম সোর্সগুলো সঠিকভাবে বাছাই করুন বা লিখে দিবেন।
  • এখন যাদের ক্ষেত্রে আয়কর জমা দিতে হবে বা টাকা দিতে হবে। তাদের জন্য “ট্যাক্স অ্যাড পেমেন্ট “বলে একটি পেজ দেখতে পাবেন। সেখানে আপনার কত টাকা ট্যাক্স দিতে হবে সেটি দেখতে পাবেন।
  • যাদের করযোগ্য আয় নাই তাদের জিরো ট্যাক্স আসবে। তাহারা “প্রসিট টু অনলাইন রিটার্ন “এই অপশন টির উপরে জাস্ট ক্লিক করবেন। এরপরে আপনার রিটার্ন ফরম আপনার সামনে চলে আসবে। এখানে আপনি ভালোভাবে আবার আপনার তথ্য যাচাই করার সুযোগ পাবেন। এরপরে” সাবমিশন রিটার্ন অপারেশন” এ ক্লিক করে দিন।
  • এরপর আপনার সামনে “ইয়েস এবং নো “দুটি বার আসবে। এখন আপনি “ইয়েস” এ ক্লিক করলে আপনার রিটার্ন সাবমিট হয়ে যাবে আপনাকে একটি রেফারেন্স নাম্বার দেওয়া হবে।
  • আর জাতের ট্যাক্স দিতে হবে তারা “পে নাও” বলে একটু অপশন পাবেন সেখানে ক্লিক করুন।
  • এরপরে আপনি কোন মাধ্যমে অনলাইনে পেমেন্ট করতে চান নিচে সকল মাধ্যমগুলি আপনার সামনে চলে আসবে। অর্থাৎ মোবাইল ব্যাংকিং-ব্যাংক- ভিসা- কার্ড সব ধরনের মাধ্যম চলে আসবে।
  • এরপর সবকিছু ঠিকঠাক হয়ে গেলে সবশেষে আপনার রিটার্ন ও ট্যাক্স জমা দেওয়ার স্লিপ ও সার্টিফিকেট ডাউনলোড করে সংরক্ষণ করুন। কারণ পরবর্তীতে যে কোন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হলে এই ডকুমেন্টসগুলো আপনার কাজে দিবে।আপনার ডকুমেন্টস বা স্লিপ বা সার্টিফিকেট ডাউনলোড করতে না পারলে আপনি হোম পেজের উপরে বা সার্টিফিকেট রিটার্ন ফর্ম সবকিছু পেয়ে যাবেন।
👉গুগল নিউজে সবার আইটি বিডি সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন

আশা করছি অনলাইনের মাধ্যমে আয় কর রিটার্ন জমা দেওয়ার কথা যারা ভেবেছিলেন তাহারা উপরের এই নিয়ম অনুসরণ করলে বর্তমানে নতুন নিয়মে ১০০% আপনি ঘরে বসেই অনলাইন আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবেন। এছাড়াও সমস্যা হলে পোষ্টের নিচে ভিডিওর লিংক থেকে আপনারা ভিডিও দেখেও এ কাজটি করতে পারবেন।

অনলাইনে আয়কর রিটার্ন ফরম

অনেকেই google এ সার্চ করে অনলাইনে আয়কর রিটার্ন ফরম এর জন্য। তো আপনারা অনলাইন আয়কর রিটার্নের ফর্মটি নিচে দেয়া লিঙ্ক থেকে সম্পূর্ণভাবে আপনাদের প্রয়োজনীয় যে ফর্ম দরকার সেটি আপনারা ডাউনলোড করে নিতে পারবেন এবং দেখতে পাবেন।

👉এখান থেকে ডাউনলোড করুন।

আয়কর সম্পর্কিত প্রশ্ন উত্তর

আয়কর রিটার্ন এবং কর সম্পর্কিত যারা বিষয় আরও জানতে চান। তারা নিচের দেওয়া এই প্রশ্ন এবং উত্তরগুলি দেখুন তাহলে সম্পূর্ণ আপনি আয়কর সম্পর্কে এ টু জেড জেনে যাবেন।

আয়কর রিটার্ন জমা না দেওয়ার শাস্তি কি?

আয়কর রিটার্ন জরিমানা দিলে সর্বোচ্চ ৫০০০ টাকা পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই বিস্তারিত আরো জানতে এবং এগুলির অনেক ধারা রয়েছে সেগুলি জানতে অবশ্যই কর অফিসে যোগাযোগ করবেন।

আয়কর রিটার্ন দাখিলের জন্য সময় প্রার্থনা কিভাবে করতে হয়?

প্রত্যেকটি উপকর কমিশনার নিজ ক্ষমতা বলে সর্বোচ্চ চার মাস পর্যন্ত আয়কর দাখিলের সময়সীমা পেয়ে থাকেন। অতএব আপনি উপকমিশনারের নিকট আপনার সমস্যার কথা খুলে বললে তারা অবশ্যই ব্যবস্থা করে দিবেন।

আয়কর রিটার্ন জমার প্রয়োজনীয়তা কি?

আয়কর কর্তৃপক্ষের নিকট কর দাতার বার্ষিক আয়ের সংক্ষিপ্ত বিবরণ উপস্থাপন করার মাধ্যম হচ্ছে আয়কর রিটার্ন। আয়কর রিটার্ন জমার মাধ্যমে কর দাতার বার্ষিক আয় ব্যয় এবং সম্পদ ও দায়ের তথ্য দাখিল হয়।

কোন মাসে আয়কর রিটার্ন জমা দিতে হয়?

কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠা অন্যান্য সকল শ্রেণীর আয়কর দাতার ক্ষেত্রে প্রতিবছরে এক জুলাই থেকে ত্রিশের সেপ্টেম্বর এই তিন মাস সময়সীমার মধ্যে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হয়।

কোথায় আয়কর রিটার্ন জমা দিতে হয়?

আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার এ, বি এবং সি অক্ষর গুলো দিয়ে ঢাকা সিভিল জেলার অবস্থিত যে সকল বেসামরিক সরকার কর্মকর্তা কর্মচারী ও পেনশন ভুক্ত কর্মকর্তা কর্মচারীর নাম শুরু হয়েছে তাদেরকে কর অঞ্চল ৪ ঢাকা কর সার্কেল ৭১ এর রিটার্ন জমা দিতে হবে।

এছাড়াও আপনার বিস্তারিত আরও জানতে চাইলে করদাতারা প্রয়োজনে কাছাকাছি আয়কর অফিসে এসে কর প্রদান বা আয়কর রিটার্ন জমা সম্পর্কে আরো বিষয়ে জানতে পারবে।

শেষ কথা -আশা করছি অনলাইনে আয়কর রিটার্ন কিভাবে জমা দিবেন এবং আয়কর রিটার্ন সম্পর্কিত এ টু জেড বিষয়ে আপনাদেরকে প্র্যাকটিক্যালি বুঝাতে সক্ষম হয়েছে। এরপরেও যদি কোন ভুল হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য –অনলাইন এ আয়কর রিটার্ন সম্পর্কিত উপরের সকল তথ্য গুলো সম্পূর্ণ অনলাইন এবং আয়কর অফিস থেকে এবং তাদের ওয়েবসাইট থেকে সংগৃহীত তাই যেকোনো সময় এই নিয়ম-কানুন গুলি পরিবর্তন পরিবর্তন হতে পারে।

আপনার জন্য আরো –

  • ইউটিউবে – ব্লগিং,ইউটিউবিং,ফেসবুকিং থেকে ইনকাম সম্পর্কিত ভিডিও পেতে–এখানে ভিজিট করুন
  • ফেসবুকে- ব্লগিং, ইউটিউবিং, ফেসবুকিং থেকে ইনকাম সম্পর্কিত সকল ভিডিও পেতে –এখানে ভিজিট করুন

Leave a Comment